Web Analytics Made Easy - StatCounter

বিকাশের ক্যাশ আউট ও সেন্ড মানির ক্ষেত্রে অতিরিক্ত টাকা নেওয়া কি জায়েজ?

আব্দুল হামীদ – নারায়ণগঞ্জ
প্রশ্ন: আমি বিকাশের একজন এজেন্ট। অনেকেই মোবাইল ব্যাংকিংয়ের বিভিন্ন সেবা গ্রহণ করতে আমার দোকানে আসে। কেউ ক্যাশ আউট করতে আসলে বিকাশ এজেন্টগণ সাধারণত প্রতি হাজারে খরচ বাবদ ২০ টাকা রাখে। অথচ কোম্পানীর পক্ষ থেকে নির্ধারিত চার্জ হল ১৮ টাকা ৫০ পয়সা। এখানে এজেন্টগণ ১ টাকা ৫০ পয়সা অতিরিক্ত লাভ গ্রহণ করে। আবার কারো ক্যাশ আউটের পরিমাণ বেশি হলে তাকে সেন্ড মানি করতে বলা হয়। এখানেও খরচ হিসেবে প্রতি হাজারে ২০ টাকা করে রাখে। অথচ কোম্পানীর পক্ষ থেকে সেন্ড মানির জন্য নির্ধারিত চার্জ হল পাঁচ টাকা। এক্ষেত্রে ২০ টাকা পুরোটাই অতিরিক্ত গ্রহণ করে থাকে। আর বলে- আমাদের তো টাকা ওঠাতে এত টাকা খরচ হবে। তাই আপনার থেকে রাখলাম। এক্ষেত্রে অনেকেই পরবর্তীতে ক্যাশ আউট না করে অন্যভাবে উক্ত টাকা ব্যবহার করে থাকে। অতএব হুযুরের কাছে উক্ত কারবারদুটির শরয়ী বিধান জানতে চাচ্ছি।
উত্তর: মোবাইল ব্যাংকিংয়ের চার্জসমূহ স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রাহকের হিসাব থেকে কেটে নেওয়া হয়। এর অতিরিক্ত কোনো টাকা দোকানী/এজেন্ট কর্তৃক নেওয়া আইনতও নিষেধ আর শরীয়তের দৃষ্টিতেও নাজায়েয। কারণ এজেন্ট মোবাইল ব্যাংকিং কোম্পানীর পক্ষ থেকে নিযুক্ত প্রতিনিধি বা উকীল। আর প্রতিনিধিরা দায়িত্ব আদায়ের ক্ষেত্রে নির্ধারিত পারিশ্রমিকের বাইরে অতিরিক্ত কিছু গ্রহণ করা রিশওয়াত তথা উৎকোচের অন্তর্ভুক্ত, যা শরীয়তে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। আর কেউ ক্যাশ আউট করতে আসলে তাকে পার্সোনাল নাম্বারে সেন্ড মানি করতে বলাও নীতি বহির্ভূত অন্যায় কাজ। এক্ষেত্রে এজেন্ট যদি পরবর্তীতে বাস্তবেই ক্যাশ আউট না করে তাহলে গ্রাহক থেকে ক্যাশ আউটের চার্জ গ্রহণ করাও জায়েয নয়। কারণ এজেন্ট পরবর্তীতে এ টাকা যদি কোথাও সেন্ড করে অথবা তা পণ্য খরিদ/মোবাইল রিচার্জ ইত্যাদি কাজে ব্যবহার করে তাহলে তার কোনোই খরচ হবে না। তাই অতিরিক্তও নিতে পারবে না।-শরহু আদাবিল কাযী, খাসসাফ ২/২৫-২৬; ফাতাওয়া বায্যাযিয়া ৫/১৪০; ইলাউস সুনান ১৫/৬৪

সৌজন্যে: মাসিক আলকাউসার

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen − nine =

error: Content is protected !!